1. admin@channel21tv.com : channel21tv.com :
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:২২ অপরাহ্ন

দশ লাখ টাকা যৌতুক দিতে না পারায় স্বামীর ঘর করতে পারছেন না অসহায় নারী।

জামালপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২ নভেম্বর, ২০২২
  • ৭০ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ জামালপুর জেলার সদর উপজেলার দেওয়ানপাড় গ্রামের ফারুক হোসেন মেয়ের মৌসুমী আক্তার সাথে

দেলদুয়ার উপজেলার কাজী আবুল হোসেনের ছেলে কাজী রানা সাথে ২০১৯ সালে বিয়ে হয়, বিয়ের কিছুদিন পরেই তার আসল চেহারা ফুটে ওঠে যৌতুকের জন্য আমাকে শারিরীক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করতে থাকে। মৌসুমি আক্তার বলেন,আমি ভবিষ্যতে সুখ হইবে এই আশায় ধৈর্য্যের সঙ্গে সংসার করিতে থাকি।ঘটনার কয়েকদিন পূর্বে কাজী রানা তাহার পিতা মাতা সহ দুর্লোর্ভী আত্নীয় স্বজনদের কু- পরামর্শে আমার পরিবারের নিকট ১০,০০,০০০ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে। টাকা দিতে অস্বীকার করলে রানার মা আমার শরীলের গরম তেল দিয়ে তাদের বাড়ী থেকে বের করে দেয়। এমন কি তালাক দেওয়ার হুমকী দেয়।

আমি আমার পিত্রালয়ে অবস্থান করি। প্রায় মাস তিনেক আমি আমার স্বামীর জন্য অপেক্ষা করি দেখি তার ভুল ভাঙ্গে কিনা তার পর আমি জামালপুর জজ কোর্টে মামলা করি সেই মামলাতে সে দুই বার জেলখানায় ছিল। জেলখানা থেকে র্কোটে মাধ্যমে ৪ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা দিয়ে আমাকে ডির্ভোস হয়।

তালাক হওয়ার পর গত ১৮ মার্চ ২০২২ ছয় লাখ টাকা কাবিনে আবার আমাদের বিয়ে হয়। তার পর আমি কাজী রানার কাছে আমাদের বিয়ের কাবিন নামা চাই। রানা আমাকে একটা কাবিন নামা দেন। এর কিছু পরে আমি রানাকে বলি রানাদের বাসায় যেতে কিন্তু রানা আমাকে তাদের বাসায় নেয় না।
আমি ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় টাঙ্গাইল জেলা পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ করেছি।
কিন্তু আমার স্বামী রানা এখন আমাদের বিয়েটা কে অস্বীকার করে যাচ্ছে।সে আমার নামে মিথ্যা একটা নিউজ পত্রিকা করিয়ে আমাকে মানসিক ভাবে ভেঙ্গে দিয়েছে। এখন সর আমাকে মেরে ফেলার হুমকিও দিতেছে। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আকুল আবেদন জানাই আমি বাঁচতে চাই এই বখাটে লম্পট স্বামীর হাত থেকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো কিছু জনপ্রিয় সংবাদ
  • © All rights reserved © 2022 Channel21tv.Com
Design & Development By Hostitbd.Com